ইসলামী ব্যাংক হোম লোন পদ্ধতি

ইসলামী ব্যাংক হোম লোন পদ্ধতি



অধিকাংশ লোকজন ইসলামী ব্যাংক লোন পদ্ধতি সম্পর্কে জানেন না। ইসলামী ব্যাংকের লোন নেওয়ার পদ্ধতি অন্যান্য ব্যাংকের থেকে কিছুটা ভিন্ন হওয়ার কারণে ইসলামী ব্যাংক থেকে লোন নিতে সমস্যা হয়। আজকে আপনাদের জানাবো ইসলামী ব্যাংক লোন পদ্ধতি সম্পর্কে। 



ইসলামী ব্যাংক বিভিন্ন ভাবে ঝণ প্রদান করে থাকে। এর মধ্যে রয়েছে,

১) নতুন বাড়ি কেনার ক্ষেত্রে

২) নতুন ফ্ল্যাট কেনার ক্ষেত্রে

৩) পুরাতন বাড়ি কেনার ক্ষেত্রে।

৪) বাড়ি সংস্কার করার ক্ষেত্রে

এছাড়াও শিল্প ব্যবসা বাণিজ্য কৃষি ইত্যাদি ক্ষেত্রে ইসলামী ব্যাংক লোন দিয়ে থাকে। আজকে আপনাদের ইসলামী ব্যাংক হোম লোন নিয়ে বিস্তারিত বলব। 


ইসলামী ব্যাংক লোন,ইসলামী ব্যাংক লোন পদ্ধতি,ব্যাংক লোন,ইসলামী ব্যাংক,ইসলামী ব্যাংক লোন পদ্ধতি বিস্তারিত,হোম লোন,ইসলামী ব্যাংক হোম লোন,ইসলামী ব্যাংক প্রবাসী লোন,সহজে ব্যাংক লোন,ইসলামী ব্যাংক এফডিআর,ইসলামী ব্যাংক ডিপিএস,ইসলামী ব্যাংক রেমিট্যান্স,ব্যাংক হোম লোন,লোন,সুদমুক্ত ইসলামি ব্যাংক,ইসলামী ব্যাংক হোম লোন 2022,জনতা ব্যাংক লোন,ইসলামী ব‍্যাংক হোম লোন,ইসলামী ব্যাংক হোম লোন পদ্ধতি,ব্র্যাক ব্যাংক লোন,ব্যাংক লোন নিতে চাই,প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক লোন
ইসলামী ব্যাংক হোম লোন



ইসলামী ব্যাংক হোম লোন 


ইসলামী ব্যাংক থেকে বাড়ি তৈরির জন্য সর্বোচ্চ ৩০ লক্ষ টাকা এবং সর্বনিম্ন ২০ লক্ষ টাকা দিয়ে থাকে। ইসলামী ব্যাংক থেকে ঋণ নেয়ার বড় সুবিধা হচ্ছে আপনারা বাড়ি তৈরির জন্য যে সকল জিনিস কিনবেন সেগুলো ব্যাংক নিজ দায়িত্বে আপনাকে কিনে দিবে। 

এছাড়াও আপনি বাড়ি সংস্কারের জন্য ইসলামী ব্যাংক থেকে ১০ লক্ষ টাকা লোন নিতে পারেন। 



ইসলামী ব্যাংক থেকে লোন পাওয়ার শর্ত 



সরকারি কিংবা বেসরকারি চাকরিজীবীদের জন্য এক বছর চাকরির অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। 

আপনার চাকরির বয়স এক বছর হলে আপনি লোনের জন্য করতে পারবেন। আপনার চাকরির বয়স এক বছরের নিচে হলে আপনি ইসলামী ব্যাংক থেকে লোন নিতে পারবেন না। 

আপনার স্যালারি যদি সরাসরি ক্যাশের মাধ্যমে হয় তাহলে আপনাকে কিছু ডকুমেন্ট সাবমিট করতে হবে। 

ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, শিক্ষক এদের লোন নেয়ার জন্য এক বছর একটি প্রতিষ্ঠানের কর্মরত থাকতে হবে। 



ব্যবসায়ীরা যদি ইসলামী ব্যাংক হোম লোন নিতে চায় তাহলে তার ব্যবসার বয়স এক বছরের বেশি হতে হবে। আপনার ব্যবসার বয়স যদি এক বছরের বেশি হয় তাহলে আপনি ইসলামী ব্যাংকে লোনের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

একজন ব্যবসায়ীকে লোন নিতে হলে ছয় মাসের ব্যাংক স্টেটমেন্ট প্রয়োজন হবে। 

ইসলামী ব্যাংক থেকে লোন পাওয়ার জন্য আপনাকে অবশ্যই দুইজন গ্যারান্টর থাকতে হবে। মা বাবা ভাই বোন বা যে কাউকে আপনার গ্যারান্টর করতে পারবেন । 



ইসলামী ব্যাংক হোম লোন নিতে কি কি ডকুমেন্ট লাগবে 


ইসলামী ব্যাংক হোম লোন নিতে হলে আপনাকে অবশ্যই নিজস্ব ব্যক্তি মালিকাধীন একটি জমি থাকতে হবে। 

জমির মূল দলিল লাগবে 




জমির মূল মালিকানা দলিল, বায়া দলিল।


সিএস, এসএ, আরএস ও বিএস খতিয়ানের জাবেদা নকল।


ডিসিআর, খাজনা রশিদ ও নামজারী খতিয়ান। জেলা/সাব রেজিস্ট্রি অফিস কর্তৃক ইস্যুকৃত ১২ (বার) বছরের নির্দায় সন্দ (এনইসি)।


আরও পড়ুন - আশা এনজিও লোন পদ্ধতি



সরকারী প্রটের ক্ষেত্রে


প্লটের বরাদ্দ পত্র। দখল হস্তান্তর পত্র।


মূল লীজ দলিল ও বায়া দলিল (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)।


লীজ দাতা প্রতিষ্ঠান হতে বন্ধক অনুমতি পত্র।


হস্তান্তর মূলে মালিক হলে হস্তান্তর অনুমতিপ্রত ও নামজারী, ডিসিআর ও


খাজনা রশিদ।


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)
নবীনতর পূর্বতন